ভোটার তথ্য অনুসন্ধান করবেন কিভাবে | দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন 2024

ভোটার তথ্য অনুসন্ধান করবেন কিভাবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন 2024
ভোটার তথ্য অনুসন্ধান করবেন কিভাবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন 2024

ভোটার তথ্য অনুসন্ধান ভোটার সিরিয়াল নাম্বার দিয়ে

ভোটার তথ্য অনুসন্ধান করার পূর্বে আপনাকে ভোটার সিরিয়াল নাম্বার সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। আপনার ভোটার এলাকায় জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধন করার সময় একটা সিরিয়াল নিবন্ধন নাম্বার পাবেন সেটাই হলো ভোটার সিরিয়াল নাম্বার।

ভোটার সিরিয়াল নাম্বার জরুরি কারণ আপনি যখন ভোট দিতে যাবেন তখন নির্বাচনে দায়িত্বরত কর্মকর্তাগণ আপনাকে ভোটার সিরিয়াল নাম্বার দেখতে চাইবেন। তখন আপনি আপনার নাম্বার টা দেখালে তারা সঠিকভাবে আপনার নাম বের করে দেবে। তখন আপনি ভোট দিতে পারবেন। সেখানে আপনি যদি নাম্বার বের করে না দিতে পারেন তাহলে সেখানে অনেক সময়ক্ষেপন করবে এবং আপনাকে অনলাইনে থেকে সিরিয়াল নাম্বার বের করে আনতে বলবে। আর সেখানে আপনি যদি ভোটার তথ্য অনুসন্ধান এর জন্য সিরিয়াল নাম্বার দেন তাহলে সহজভাবেই আপনার কাঙ্ক্ষিত ভোট দিতে পারবেন। 

আরো পড়ুনঃ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এজেন্ট এবং পোলিং এজেন্টের কাজ কি

যেভাবে ভোটার সিরিয়াল নাম্বার জানবেন

কিছুদিন পূর্বে ভোট দেওয়ার জন্য ভোটার তথ্য অনুসন্ধান এর জন্য জন্য ভোটার সিরিয়াল নাম্বার জানা খুব সহজ ছিল। কিছুদিন পূর্বে ভোটার সিরিয়াল নাম্বার অনলাইন থেকে জেনে নিতে পারতাম। কিন্তু বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন অফিসের ওয়েবসাইট আপডেট করার পর থেকে অনলাইনে এই কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এখন সিরিয়াল নাম্বার বের করার কোন উপায় নাই তাই আমাদের ম্যানুয়ালি চেক করে নাম্বার বের করতে হবে। 

নির্বাচন সংক্রান্ত পোস্টগুলি দেখুনঃ

ভোটার সিরিয়াল নাম্বার জানার জন্য আপনি যখন ভোট দিতে যাবেন তখন নির্বাচন অফিসের বাইরে দেখবেন আপনার পাড়ার অনেক কর্মী এলাকাভিত্তিক নির্বাচনের নথিপত্র নিয়ে বসে আছে। তাদেরকে আপনি জাতীয় পরিচয়পত্র দেখালে তারা আপনাকে আপনার নাম ঠিকানা দিয়ে ভোটার সিরিয়াল নাম্বার বের করে দিবেন।

এই পোস্ট আপনার জন্যঃ কোন দলের কোন মার্কা বরাদ্দ রয়েছে | ১২তম জাতীয় সংসদ নির্বাচন 2024

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটার আইডি কার্ড প্রদান করে থাকে। তবে এর জন্য ভোটার আইডি কার্ডের আবেদন করতে হয়। ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করলে আবেদন গ্রহণ হওয়ার পর ভোটার আইডি কার্ড পাওয়া যায়।

অনলাইনের মাধ্যমে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে থাকে। নতুন ভোটাররা যাতে সহজেই তাদের ভোটার আইডি কার্ড করতে পারে এ জন্য কয়েক বছর পর পর বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটার আইডি কার্ড করার জন্য তথ্য সংগ্রহ করে থাকে। এজন্য নির্দিষ্ট একটি বয়সসীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। এই বয়সসীমার মধ্যে যারা অন্তভুক্ত তারা নতুন ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবে।

এই পোস্ট আপনার জন্যঃ রিটার্নিং অফিসার এবং সহকারী রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব, কর্তব্য ও নিয়োগ

অনলাইনে ভোটার তথ্য অনুসন্ধান

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন থেকে ভোটার তথ্য অনুসন্ধান করার জন্য আপনাকে প্রথমে তাদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে। অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের লিংক – https://services.nidw.gov.bd/। ওয়েবসাইটে ভিজিট করার পর আপনাকে লগিন করে নিতে হবে যে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে চান সেই ভোটার আইডি কার্ডের অ্যাকাউন্ট যদি। অ্যাকাউন্ট না থাকলে নতুন অ্যাকাউন্টের জন্য রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হবে। লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করার পর ড্যাশবোর্ডে গেলে ভোটার আইডি কার্ড চেক করে নিতে পারবেন।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে প্রথমে তাদের ওয়েবসাইটে লগিন করতে হবে। লগিন করা হয়ে আপনাকে ড্যাশবোর্ডে নিয়ে যাবে সেখানে ডাউনলোড নামের একটি অপশন পাবেন। ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

ভোটার আইডিতে বিভিন্ন পেশা বা পদবী ব্যবহার করা যাবে?

না, ভোটার আইডিতে বিভিন্ন পেশা বা পদবী ব্যবহার করা যাবে না। আমাদের মধ্যে কিছু মানুষ আছেন, যে মানুষ গুলো আসলে তাদের ভোটার আইডি কার্ডে বিভিন্ন রকম পেশা, খেতাব কিংবা পদবী ব্যবহার করতে চায়। তো সেই মানুষ গুলোর মনে একটি প্রশ্ন জেগে থাকে। যে তার এই পেশা কিংবা পদবি গুলোকে ভোটার আইডি কার্ডের ব্যবহার করতে পারবে কিনা। তো যাদের মনে এই ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে, তাদের বলব। একটি ভোটার আইডি কার্ডের তালিকা শুধুমাত্র নামের ডেটাবেজ থাকে। সেই কারণে আপনি এ ধরনের খেতাব, পেশা কিংবা পদবী কে ভোটার আইডি কার্ডে সংযুক্ত করতে পারবেন না।

ভোটার আইডি কার্ড উত্তোলন

ভোটার রেজিস্ট্রেশন করার পরে যদি বিদেশে যায় তাহলে অন্য কেউ আইডি কার্ড উত্তোলন করতে পারবে? যদি আপনি বাংলাদেশ ভোটারের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেন এবং আপনার তথ্য প্রদান করে তারপর বিদেশ চলে গেলেন। নির্বাচনের নিয়মানুসারে অনুপস্থিতিতে অন্য কেউ আপনার ভোটার আইডি কার্ড উত্তোলন করতে পারবে না। তবে আপনি ইচ্ছা করলেই আপনি বিদেশ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে আপনার ভোটার আইডি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন ।

এটা পড়তে পারেনঃ প্রিজাইডিং অফিসারের প্রধান কাজ কি | প্রিজাইডিং অফিসার হওয়ার যোগ্যতা 2024

ভোটার তথ্য ভুল দিলে করণীয়

এখানে আপনি যদি ভোটার তথ্য ভুল দিয়ে থাকেন সে সম্পর্কে জানাব। একজন ভোটারের সকল তথ্য সঠিকভাবে দেওয়া উচিত। কিন্তু ইচ্ছাকৃতভাবে ভোটার তথ্য ভুল প্রদান করায় পরবর্তীতে বিভিন্ন রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। যদি আপনি নিজের ইচ্ছায় ভোটার তথ্য ভুল তথ্য প্রদান করেন। তবে আপনার জেল কিংবা জরিমানা হতে পারে। তাই যখন আপনি ভোটার হবেন তখন আপনাকে খুব যত্ন সহকারে ভোটার ইনফরমেশন দিতে হবে। কারণ একবার ভুল দিলে আপনাকে অনেক ভুলের মাশুল গুনতে হবে।

ভোটার তথ্য ভুল দিলে আপনাকে তা সংশোধনের জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিসার বরাবর আবেদন করতে হবে। সে আবেদনের প্রেক্ষিতে আপনাকে উপজেলা নির্বাচন অফিস ভুল শুধরে দিবে।

উপসংহার

উপরের আলোচনার প্রেক্ষিতে বলা যায় যে, ভোটার তথ্য অনুসন্ধান এর জন্য আপনাকে পরিপূর্ণ ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি।  এজন্য আপনাকে এই পোস্টটি ভালভাবে পড়তে হবে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দেওয়ায়র জন্য ভোটার তথ্য খুঁজতে যা যা করণীয় তা সম্পর্কে উপরে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

Visited 271 times, 1 visit(s) today

Leave a Comment

You cannot copy content of this page