ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম 2024 | নতুন পদ্ধতিতে ছবিসহ টিউটোরিয়াল

সুপ্রিয় সরকারি চাকরিজীবী ভাই ও বোনেরা সবাই কেমন আছেন? আপনারা সকলেই জেনে থাকবেন যে, বাংলাদেশ সরকার সকল সরকারি অফিসের কার্যক্রম পেপারেলেস করার জন্য নানান নির্দেশনা প্রদান করে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশকে স্মার্ট বাংলাদেশ করার জন্য প্রতিটি সরকারি অফিসে এখন থেকে ডিনথিতে কাজ করা হবে বলে সরকারি নির্দেশনায় রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উদ্যোগে সরকারি অফিসে ডিনথি ব্যবহারের জন্য ডিনথি সিস্টেম ব্যবহার সহায়িকা প্রকাশ করেছে। বর্তমানে দেশের উপজেলা পর্যায়ের সকল সরকারি অফিসে ডিনথি সিস্টেমে কাজ করে থাকেন কিন্তু জেলার কিছু কিছু অফিস এখনো ইনথি থেকে ডিনথিতে কনভার্ট হয়নি। যেহেতু অফিসগুলো এখনো ডিনথিতে কনভার্ট হয়নি তাই আমি আপনাদের জন্য এখানে ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম 2024 সহ নতুন পদ্ধতিতে ছবিসহ টিউটোরিয়াল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। 

ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম 2024 নতুন পদ্ধতিতে ছবিসহ টিউটোরিয়াল
ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম 2024 নতুন পদ্ধতিতে ছবিসহ টিউটোরিয়াল

 

ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম 2024

২০২৩ সালের শুরুর দিকে ইনথি থেকে ডিনথিতে সকল সরকারি অফিস রুপান্তরে শুরু করে মন্ত্রণালয়। তাই অনেক সরকারি কর্মকর্তা/ কর্মচারী ডিনথি ব্যবহার করতে জানেন না। আপনি যদি একজন সরকারি কর্মচারী হয়ে থাকেন তাহলে ডিনথি ব্যবহার করতে হবে এবং এসাথে কিভাবে ডিনথি ব্যবহার করতে হয় তার নিয়ম আপনাদের জানা জরুরি। নিচে ধাপে ধাপে ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম ২০২৪ সালের আপডেট অনুযায়ী টিউটোরিয়াল উপস্থাপন করব। 

আরো পড়ুনঃ গোপনীয় অনুবেদন নতুন ফরম | ১৩ম-১৬তম গ্রেডের কর্মচারীদের জন্য 2024

ডিনথিতে লগিন করে ডাক দেখাঃ

ডিনথিতে লগিন করে আপনি আপনার ডাক দেখতে পারবেন। ব্যবহারকারী নিজ নিজ ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে ডিনথি সিস্টেমে প্রবেশ করলেই ডাক মডিউল দেখতে পারবেন অথবা উপরের বাম দিকের মেন্যু থেকে “ডাক” আইকনে ক্লিক করে ডাক মডিউল দেখতে পারবেন।

ডিনথি সিস্টেমের হোম পেজে ডিফল্টভাবে আগত ডাকের তালিকা দেখা যাবে। ডানে ব্যবহারকারীর নাম, পদবী ও শাখা দেখা যাবে। নাম ও পদবীর এই অংশটিতে ক্লিক করলে প্রোফাইল, হেল্প ডেস্ক এবং লগ আউট করার অপশন পাওয়া যাবে।

এই পোস্ট পড়তে পারেনঃ একনজরে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যবেক্ষণ নির্দেশিকা 2024

১। দাপ্তরিক ডাক আপলোডঃ

এ পর্যায়ে আপনাকে ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম জানার জন্য আপনাকে ডিনথিতে ডাক আপলোড করা জানতে হবে। এজন্য আপনাকে নিম্নের ধাপগুলি অনুসরণ করতে হবে।

  • ডাক বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • বামপাশের মেনু থেকে ডাক আপলোড বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • দাপ্তরিক ডাক বাটনে ক্লিক করলে ডাক আপলোডের উইন্ডো চলে আসবে।
  • ব্রাউজ বাটনে ক্লিক করে কম্পিউটারের সংরক্ষিত ফাইল নির্বাচন করতে হবে মুলপত্র বাছাই করতে হবে।
  • প্রেরক বাছাই এর জন্য অফিসার খুঁজুন অপশন থেকে কর্মকর্তার নাম অথবা পদবী দিয়ে কাঙ্খিত কর্মকর্তাকে খুঁজে পাওয়া যাবে।
  • অথবা, অফিসার বাছাই করুন অপশন থেকে মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর, অফিস, শাখা নির্বাচন করতে হবে অথবা অফিস খুঁজুন অপশন থেকে কাঙ্খিত অফিসের কর্মকর্তাকে খুঁজে পাওয়া যাবে।
  • অথবা, ই-ফাইল সিস্টেমে নেই এমন কাউকে প্রেরক হিসেবে বাছাই করতে তথ্য নিজে লিখুন বাটনে ক্লিক করে তার নাম, ইমেইল, পদবী, শাখা, কার্যালয় এর তথ্য লিখে নিশ্চিত করুন বাটনে ক্লিক করলে প্রেরক বাছাই হবে।
  • ডাকের বিবরণ অংশে স্মারক নম্বর, স্মারকের তারিখ, প্রেরনের মাধ্যম এবং বিষয় বাছাই করতে হবে।
  • সিদ্ধান্ত দিন অংশে ডিফল্ট সিদ্ধান্ত দেয়া থাকবে, প্রয়োজনমত সিদ্ধান্ত সম্পাদন করা যাবে।
  • প্রাপক অংশে নতুন সিল বানান বাটনে ক্লিক করে বাম পাশ থেকে নিজ শাখার পদসমূহ থেকে নামের পাশের চেক বক্সে টিক চিহ্ন ক্লিক করে প্রাপক তালিকা বাছাই করতে হবে এবং সংরক্ষন করতে হবে।
  • প্রাপক তালিকা হতে মূল প্রাপক বাছাই করতে হবে এরপর কার্যার্থে অনুলিপি, জ্ঞাতার্থে অনুলিপি ও দৃষ্টি আকর্ষণ বাছাই করা যায়।
  • খসড়া সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করলে সংরক্ষণ হবে অথবা, প্রেরণ বাটনে ক্লিক করলে সরাসরি প্রাপক দের আগত ডাকে চলে যাবে।

আরো দেখুনঃ প্রিজাইডিং অফিসারের প্রধান কাজ কি | প্রিজাইডিং অফিসার হওয়ার যোগ্যতা 2024

২। ডাক প্রেরণঃ

আপনারা পড়ছেন ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম এর মধ্যে ডাক প্রেরণের পদ্ধতি। আপনারা হয়তো জেনে থাকবেন যে, ডি-নথি সিস্টেমে তিন ভাবে ডাক প্রেরণ করা যায়, যেমন

  • ক. ডাক বিস্তারিত দেখেঃ ইউজার যে ডাকটি প্রেরণ করতে চাচ্ছেন সেই ডাকটির উপর ক্লিক করলে ডাকের বিস্তারিত ওপেন হয়, পেজের উপরে ডান দিকে অ্যাকশন বাটন দেখা যায়, তন্মধ্যে ডাক প্রেরণ করুন বাটন ক্লিক করে ইউজার ডাক প্রেরণ করতে পারবেন।
  • খ. সরাসরি প্রেরণঃ ডাক তালিকা থেকে সংশ্লিষ্ট ডাকের উপর মাউস নিলে অ্যাকশন বাটন দেখা যায়, তন্মধ্যে ডাক প্রেরণ করুন বাটন ক্লিক করে ইউজার ডাক প্রেরণ করতে পারবেন।
  • গ. একাধিক ডাক একত্রে প্রেরণঃ ইউজার তার ডাক তালিকা হতে ডাকের বাম পাশে চেকবক্সের মাধ্যমে একাধিক ডাক বাছাই করে পেজের উপরে ডাক প্রেরণ করুন বাটন ক্লিক করে একাধিক ডাক একত্রে প্রেরণ করতে পারবেন।

৩। ডিনথিতে ডাক নথিতে উপস্থাপনের নিয়ম

কর্মচারীদের সবচেয়ে যে কাজ জানতে হবে তা হলো ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম। শুধু ডাক প্রেরণ করলেই হবেনা, আপনাকে ডাক নথিতে উপস্থাপন করা জানতে হবে। 

  • ক. সরাসরি উপস্থাপনঃ আগত ডাক তালিকা হতে যে ডাকটি ইউজার নথিতে উপস্থাপন করতে চান উক্ত ডাকের সর্ব ডানে নথিতে উপস্থাপন বাটন পাবেন। উক্ত বাটন ব্যবহার করে ইউজার তার ডাক ড্যাশবোর্ড হতে সরাসরি ডাক নথিতে উপস্থাপন করতে পারবেন।
  • খ. ডাক বিস্তারিত দেখেঃ ইউজার যে ডাকটি নথিতে উপস্থাপন করতে চাচ্ছেন সেই ডাকটির উপর ক্লিক করে ওপেন করলে ডাক বিস্তারিত পেজের উপরে ডান দিকে নথিতে উপস্থাপন বাটন পাবেন। উক্ত বাটন ব্যবহার করে ইউজার ডাক নথিতে উপস্থাপন করতে পারবেন।
  • গ. একাধিক ডাক বাছাই ও নথিতে উপস্থাপনঃ আগত ডাক তালিকা হতে ডাকের বাম পাশের চেকবক্সের মাধ্যমে একাধিক ডাক বাছাই করে ডাক ড্যাশবোর্ড পেজের উপরে নথিতে উপস্থাপন বাটন ব্যবহার করে একাধিক ডাক নথিতে উপস্থাপন করা যায়।

এখন স্টেপ বাই স্টেপ কিভাবে ডিনথিতে ডাক নথিতে উপস্থাপন করবেন তা সম্পর্কে জানতে পারবেন।

  • নথিতে উপস্থাপন বাটন ক্লিক করার পর ব্যবহারকারী তার সকল নথি তালিকার নথিসমূহ দেখতে পাবেন, সেখান থেকে কাংখিত নথিটি খুঁজে নিতে হবে।
  • প্রদর্শিত তালিকা থেকে ডাক সংশ্লিষ্ট নথি সিলেক্ট করতে হবে।
  • নথির নোট তালিকা ওপেন হবে এবং বিষয়ের উপর ভিত্তি করে নোট নির্বাচন করতে হবে। এখানে পূর্বের কোন নোটে উপস্থাপন করতে চাইলে সেই নোটের বাম পাশের চেক বক্স বাটনে ক্লিক করে ডাক নথিতে উপস্থাপন করতে পারবেন।
  • যদি ড্রপডাউন সেকশনে কোনো নোট না পাওয়া যায় অথবা তালিকাতে ডাক সংশ্লিষ্ট বিষয়ের নোট না থাকে তাহলে ব্যবহারকারী নতুন নোট বাটনে ক্লিক করে নোটের বিষয় লিখে সংরক্ষণ করে নতুন নোট নিতে পারবেন।
  • নোট বাছাই বা নতুন নোট সংরক্ষণের পর ডাকটি নথিতে উপস্থাপিত হবে এবং নোটাংশ ও পত্রাংশ পাশাপাশি প্রদর্শিত হবে।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পর্কে জানুনঃ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের লক্ষ্য, চ্যালেঞ্জ উত্তরণের উপায় 2024

৪। নথির ধরণ তৈরি

ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম এর মধ্যে ডাক নথিতে উপস্থাপন করা খুব জরুরি। ডাক নথিতে উপস্থাপন না করলে আপনার অফিসের কোনো কাজ শুরু হবেনা। তাই আগে আপনাকে নথির ধরণ তৈরি করতে হবে। এজন্য আপনাকে নিচের স্টেপ অনুসরণ করতে হবে।

  • নথি বাটনে ক্লিক করতে হবে। 
  • স্ক্রিনের বামদিকে নতুন নথি তৈরি বাটনে ক্লিক করতে হবে। 
  • উপরে ডানদিকে ধরণের তালিকা বাটনে ক্লিক করার পর নতুন ধরন তৈরি করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে। 
  • আই বাটনে ক্লিক করলে নথির ধরণ তৈরি বিষয়ে সচিবালয়ের নির্দেশমালা দেখা যাবে। 
  • বিষয়ের ধরন ও ধরনের কোড নম্বর লিখে সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করলে নতুন ধরণ তৈরি হয়ে যাবে।

৫। যেভাবে ডিনথিতে নথি তৈরি করবেন

এখানে আপনি ডিনথিতে কিভাবে নথি তৈরি করবেন সে সম্পর্কে জানতে পারবেন। আপনি যদি নথির ধরণ তৈরি করে থাকেন তাহলে আপনাকে নথি তৈরি করতে হবে। ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম এর মধ্যে নথি তৈরি করা অন্যতম একটি বিষয়। তাই নিচের কাজগুলি ফলো করুন। 

  • নথি বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • নথির ধরনের নিচের ড্রপডাউন মেনু থেকে নথির ধরণ নির্বাচন করতে হবে।
  • নথির নম্বর স্বয়ংক্রিয়ভাবে পূরণ হবে, তবে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে শেষ ৫ ভিজিট পরিবর্তন করা যাবে।
  • নথির শ্রেণী নির্বাচন করতে হবে, আই বাটনে ক্লিক করলে নথির ধরণ তৈরি বিষয়ে সচিবালয়ের নির্দেশমালা দেখা যাবে।
  • সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করলে শুধুমাত্র নথি তৈরিকারীকে অনুমতিপ্রাপ্ত বিবেচনা করে নথি টি তৈরি হবে।
  • অনুমতি সংশোধন বাটনে ক্লিক করলে সংশ্লিষ্ট নথিতে যারা কাজ করবেন তাদেরকে নির্বাচন করার উইন্ডো আসবে।
  • কর্মকর্তা নির্বাচন করে সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করলে নথি টি তৈরি হবে। পরবর্তীতে সকল নথি হতে নির্দিষ্ট নথিটির নথি সম্পাদনা এবং অনুমতি সংশোধন বাটনে ক্লিক করে অনুমতিপ্রাপ্তদের তালিকা সংশোধন করা যাবে।

৬। স্ব-উদ্যোগে/ নির্দেশিত হয়ে নথি উপস্থাপনঃ

এ পর্যায়ে ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম এর মধ্যে আপনাকে স্ব-উদ্যোগে বা কর্তৃপক্ষের নির্দেশিত হয়ে ডাক নথিতে উপস্থাপন করতে হবে। আপনি যদি স্ব-উদ্যোগে ডাক নথিতে উপস্থাপন করতে চান তাহলে আপনাকে নিচের স্টেপগুলি ভালভাবে মেনে চলতে হবে। 

  • ব্যবহারকারীকে নথি মডিউলের বাম পাশে সাবমেনু থেকে সকল নথি নির্বাচন করতে হবে।
  • নথি তালিকা হতে ব্যবহারকারী তার প্রয়োজন/বিষয় অনুযায়ী নথি নির্বাচন করবেন। সংশ্লিষ্ট নথি নির্বাচন করলে উক্ত নথির নোট তালিকা দেখা যাবে এবং বিষয়ের উপর ভিত্তি করে নোট নির্বাচন করতে হবে।
  • এখানে পূর্বের কোন নোটে উপস্থাপন করতে চাইলে সেই নোটের উপর ক্লিক করলে নতুন অনুচ্ছেদ লেখার জন্য নোটাংশ এবং পত্রাংশ সংবলিত উইন্ডোটি ওপেন হবে। যদি ড্রপডাউন সেকশনে কোনো নোট না পাওয়া যায় অথবা তালিকাতে ডাক সংশ্লিষ্ট বিষয়ের নোট না থাকে তাহলে ব্যবহারকারী নতুন নোট বাটনে ক্লিক করে নোটের বিষয় লিখে সংরক্ষণ করে নতুন নোটে অনুচ্ছেদ নিতে পারবেন।
  • নোটে অনুচ্ছেদ লিখে সংশ্লিষ্ট প্রাপককে প্রেরণ করতে হবে।

৭। নোট লেখা নোটাংশ ও পত্রাংশঃ

আপনি যদি একজন সরকারি কর্মচারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি অবশ্যই কোনো চিঠির প্রেক্ষিতে কিভাবে নোট দিতে তা জেনে থাকবেন। এখানে আপনি ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম এর মধ্যে কিভাবে চিঠির প্রেক্ষিতে নোট লেখা এবং পত্রাংশ চেক করতে হয় তা দেখাব। এজন্য এখানে নোটাংশ ও পত্রাংশ পেজে গুরুত্বপূর্ণ (চিহ্নিত) অপশনের বিবরণ পেশ করা হলো। 

  • ১. বিষয় সম্পাদনা করুনঃ নোটের বিষয় সম্পাদনা করতে পারবেন।
  • ২. গার্ড ফাইল বাছাই করুনঃ ফাইলে/নোটে বরাতসূত্র (রেফারেন্স) হিসাবে বিভিন্ন আইন, সার্কুলার, বিধি, ম্যানুয়াল নথিতে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • ৩. পত্র বাছাই করুন/বিবেচ্য পত্রঃ নোটাংশে ডাক/পত্র রেফারেন্স হিসেবে অনুচ্ছেদে যুক্ত করতে পারবেন।
  • ৪. পতাকা বাছাই করুনঃ পত্রাংশ হতে বাছাইকৃত পতাকা রেফারেন্স হিসাবে অনুচ্ছেদে দিতে পারবেন। 
  • ৫. অনুচ্ছেদ বাছাই করুনঃ উক্ত নথির পূর্বের অনুচ্ছেদসমূহ রেফারেন্স হিসাবে অনুচ্ছেদে দিতে পারবেন।
  • ৬. সংযুক্ত রেফ বাছাই করুনঃ প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ফাইলসমূহ রেফারেন্স হিসাবে অনুচ্ছেদে দিতে পারবেন।
  • ৭. সিদ্ধান্ত বাছাই করুনঃ বহুল ব্যবহৃত সিদ্ধান্তসমূহ উল্লেখিত আইকনে ক্লিক করে অনুচ্ছেদে যুক্ত করতে পারবেন। উল্লেখ্য যে এক্ষেত্রে নথি মডিউলে নথি সিদ্ধান্তসমূহ অপশনে সিদ্ধান্ত তালিকায় পূর্বেই যুক্ত করে সক্রিয় করে নিতে হবে।
  • ৮. পতাকাঃ পত্রাংশ হতে সম্পূর্ণ পত্রটি বা পত্রে নির্দিষ্ট পৃষ্ঠা পতাকা হিসাবে বাছাই করতে পারবেন। এক্ষেত্রে শিরোনাম অবশ্যই দিতে হবে।

অনুচ্ছেদ লেখা সম্পন্ন হলে “সংরক্ষন করুন” বাটনে ক্লিক করে অনুচ্ছেদ সংরক্ষণ করতে হবে। নতুন অনুচ্ছেদ লিখতে “নতুন অনুচ্ছেদ” বাটনে ক্লিক করতে হবে। নোটটি পরবর্তী প্রাপকের নিকট প্রেরণ করতে- প্রেরণ বাটনে ক্লিক করে সংশ্লিষ্ট প্রাপক নির্বাচনের পর পুনরায় প্রেরণ বাটনে ক্লিক করলে নথিটি পরবর্তী প্রাপকের নিকট চলে যাবে।

সংশ্লিষ্ট প্রাপককে প্রেরনের নামের তালিকায় না পাওয়া গেলে অনুমতি সংশোধন বাটনে ক্লিক করে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নথিতে অনুমতি প্রদান করে সংরক্ষণ করুন বাটনে ক্লিক করে সংরক্ষণ করলে প্রাপকের তালিকায উক্ত কর্মকর্তার নাম পাওয়া যাবে।

৮। পত্রের খসড়া তৈরিঃ

ডিনথিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো একটি বাছাই করে তা নির্দিষ্ট নথিতে উপস্থাপন অন্তে ঐ চিঠির প্রেক্ষিতে পত্রের খসড়া তৈরি করা। কিন্তু অনেকেই ডিনথিতে কিভাবে পত্রের খসড়া তৈরি করতে হয় তা জানেনা। তাই আপনি যদি ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে এ বিষয়ে জানতে হবে।  

  • নোটানুচ্ছেদ সংরক্ষণ করার সময় ড্রপডাউন হতে সংরক্ষণ ও খসড়া বাটনে ক্লিক করলে অথবা নোট সংরক্ষণের পর খসড়া তৈরি বাটনে ক্লিক করলে অফিস স্মারকে পত্রের খসড়া তৈরির উইন্ডো আসবে।
  • অফিস স্মারক ব্যতীত অন্যান্য টেমপ্লেট এর ক্ষেত্রে বামপাশের পত্রের ধরনের ড্রপডাউন মেনু থেকে পত্রের ধরণ নির্বাচন করা যাবে।
  • সূত্রসহ (ডাক নথিতে উপস্থাপনের ক্ষেত্রে) খসড়া পত্র তৈরি করতে পত্রাংশের উপরের খসড়া তৈরি বাটনে ক্লিক করলে সূত্রসহ পত্রের বিষয় দৃশ্যমান হবে। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার ও গোপনীয়তা নির্বাচন করতে হবে।
  • ডান পাশের পত্র গ্রহণকারী অংশে অনুমোদনকারী বাটন এর ডান পাশের আইকন -এ ক্লিক করে পত্রের অনুমোদনকারী (স্বাক্ষরকারী) নির্বাচন করতে হবে। প্রেরক বাটন এর ডান পাশের আইকন এ ক্লিক করে প্রেরক নির্বাচন করতে হবে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)। পত্রের অনুমোদনকারী এবং প্রেরক একই ব্যক্তি হলে শুধু অনুমোদনকারী নির্বাচন করলেই হবে।
  • প্রাপক বাটন এর ডান পাশের আইকন এ ক্লিক করে ৪টি পদ্ধতিতে (অফিসার খুঁজুন, অফিসার বাছাই করুন, অফিসার গ্রুপ এবং প্রাপক সিস্টেমে না থাকলে নিজে তথ্য লিখুন অপশন থেকে) পত্রের প্রাপক নির্বাচন করা যাবে
  • দৃষ্টি আকর্ষণ বাটন এর ডান পাশের আইকন -এ ক্লিক করে পত্রের দৃষ্টি আকর্ষণ প্রাপক নির্বাচন করা যাবে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • অনুলিপি বাটন এর ডান পাশের আইকন -এ ক্লিক করে পত্রের অনুলিপি প্রাপক নির্বাচন করতে হবে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • পত্রের বিষয় টাইপ করতে হবে।
  • পত্রের বড়িতে সম্পাদনা বাটনে ক্লিক করে পত্রের বডি সম্পাদনা করতে হবে।
  • ওয়ার্ড ফাইলের লেখা কপি করে পত্রের বড়িতে পেন্ট করা যাবে।
  • পত্রের বড়িতে লেখা ও সম্পাদনা শেষ হলে সম্পাদনা শেষ করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • সংযুক্তি বাটনে ক্লিক করে পত্রের সাথে সংযুক্তি যুক্ত করা যাবে এবং পর পেজ সেটিংস বাটনে ক্লিক করে প্রয়োজনমত পত্রের পেজ সেটআপ করা যাবে।
  • ডান পাশে উপরে দিকে সংরক্ষণ করুন বাটনে ক্লিক করে পত্রটি সংরক্ষণ করতে হবে এবং পত্রটি পত্রাংশ অংশে প্রদর্শিত হবে।
  • সবশেষে প্রেরণ বাটনে ক্লিক করে নথিটি (নোট ও খসড়া) পত্রসহ অনুমোদনকারীর নিকট প্রেরণ করতে হবে।

শেষকথাঃ

উপরের আলোচনার প্রেক্ষিতে বলা যায় যে, একজন সরকারি অফিসের কর্মচারী হিসেবে ডিনথি ব্যবহারের নিয়ম 2024 জানা অত্যন্ত জরুরি তাই আমি আপনাদের জন্য নতুন পদ্ধতিতে ছবিসহ টিউটোরিয়াল এখানে উপস্থাপন করেছি। আরো এ ব্যাপারে কোনো কিছু জানার থাকলে কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ আপনাদের।

Visited 49 times, 1 visit(s) today

Leave a Comment

You cannot copy content of this page